মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:০১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দুপচাঁচিয়ায় ভাগ্নিকে ধ র্ষণের অ ভিযোগে খালু গ্রে ফতার উপজেলা নির্বাচন ২০২৪ নোয়াখালী,বেগমগঞ্জ বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ও শহীদ কামারুজ্জামানের সমাধীতে আরসিআরইউ’র শ্রদ্ধা বগুড়ার সেরা ফটোগ্রাফার হিসেবে আইফোন জিতলেন আরিফ শেখ দুপচাঁচিয়ায় জোহাল মাটাইয়ে ক্রিকেট টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন রাজশাহী কলেজ শিক্ষার্থীদের ভাবনায় গৌরবদীপ্ত বিজয় দিবস বর্ণাঢ্য আয়োজনে বগুড়ায় যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত আর্থিক সহায়তা প্রদান করলেন ফাঁপোর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মেহেদী হাসান বগুড়ায় টিএমএসএস মেডিকেল কলেজের ক্যান্সার সেন্টার পরিদর্শন দুপচাঁচিয়ায় বিউটি পার্লারে অভিযান জরিমানা

চলে গেলেন নজরুল সঙ্গীতশিল্পী খালিদ হোসেন

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৩ মে, ২০১৯
  • ১৬৮১ ভিউ টাইম

News Dexচলে গেলেন বরেণ্য নজরুলসংগীত শিল্পী, গবেষক, স্বরলিপিকার ও একুশে পদকপ্রাপ্ত সংগীতগুরু খালিদ হোসেন। গতকাল বুধবার রাত সোয়া ১০টায় রাজধানীর জাতীয় হূদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) চিকিত্সাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর।

খালিদ হোসেনকে গত ৪ মে জাতীয় হূদরোগ ইনস্টিটিউটে সিসিইউতে ভর্তি করা হয়েছিল। তিনি হূদরোগ, কিডনি ও ফুসফুসের জটিলতায় ভুগছিলেন। আজ বৃহস্পতিবার পৈতৃক ভিটা কুষ্টিয়ায় মায়ের কবরের পাশে তাঁকে দাফন করা হবে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

খালিদ হোসেনের জন্ম ১৯৩৫ সালের ৪ ডিসেম্বর। ব্রিটিশ ভারতের পশ্চিমবঙ্গে নদিয়া জেলার কৃষ্ণনগরে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। দেশভাগের পর তিনি পরিবারের সঙ্গে কুষ্টিয়ার কোর্টপাড়ায় চলে আসেন। ১৯৬৪ সালে তিনি ঢাকায় স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন।

সুরসাধক খালিদ হোসেন পাঁচ দশক ধরে বাংলাদেশে নজরুলগীতির শিক্ষক, গবেষক ও শুদ্ধ স্বরলিপি প্রণয়নে কাজ করেছেন। দীর্ঘ কর্মজীবনে তিনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় কবি কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় এবং দেশের সব মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড ও বাংলাদেশ টেক্সট বুক বোর্ডে সংগীত নিয়ে প্রশিক্ষক ও নিরীক্ষকের দায়িত্ব পালন করেছেন। নজরুল ইনস্টিটিউটে নজরুলসংগীতের আদি সুরভিত্তিক নজরুল স্বরলিপি প্রমাণীকরণ পরিষদেরও সদস্য ছিলেন তিনি।

খালিদ হোসেনের ছয়টি নজরুলসংগীতের অ্যালবাম প্রকাশিত হয়েছে। তাঁর একমাত্র আধুনিক গানের অ্যালবাম ‘চম্পা নদীর তীরে’। এ ছাড়া এই সুরসাধকের ১২টি ইসলামী গানের অ্যালবাম রয়েছে। তাঁর সর্বশেষ নজরুলগীতির অ্যালবাম ‘শাওনও রাতে যদি’।

নজরুলসংগীতে অনবদ্য অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ২০০০ সালে দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার একুশে পদক পান খালিদ হোসেন। এ ছাড়া তিনি নজরুল একাডেমি পদক, শিল্পকলা একাডেমি পদক, কলকাতা থেকে চুরুলিয়া পদকসহ বহু সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন।

দয়াকরে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরী আরো খবর...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

Developed By VorerSokal.Com
newspapar2580417888