বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৮:৫৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মাটিকাটার রাস্তা উদ্বোধন ও পরিদর্শন করেন,  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারুক আল মাসুদ বগুড়া জেলা অ্যাড.বার সমিতির নির্বাচনে মতিন সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক বাছেদ নির্বাচিত ঝিনাইগাতীতে বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত  তথ্য গোপন করে বাংলাদেশ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট দখলের চেষ্টা, প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অস্বচ্ছ শিক্ষার্থীর পাশে ছাত্রলীগ নেতা জাফর প্রতিবন্ধীর অটো রিক্সা চুরি বগুড়ায় খুন, অস্ত্র ও মাদকসহ একাধিক মামলার আসামী শ্রী জুয়েল চন্দ্র ওরফে হাড়ী জুয়েল গ্রেফতার বগুড়ায় নবান্ন উৎসব উপলক্ষে ঐতিহ্যবাহী মহাস্থানে মাছের মেলা ঝিনাইগাতীতে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সপ্তাহ উদ্ধোধন বগুড়া জিয়া মেডিকেল থেকে চুরি যাওয়া নবজাতক গাজীপুর থেকে উদ্ধার

বগুড়ায় নবান্ন উৎসব উপলক্ষে ঐতিহ্যবাহী মহাস্থানে মাছের মেলা

  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২২
  • ২৭ ভিউ টাইম

মিলন হোসেন, নিজেস্ব প্রতিনিধি :  নবান্ন উৎসব উপলক্ষে বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার ঐতিহাসিক মহাস্থান বাজারে বসেছে শত বছরের ঐতিহ্যবাহী মাছের মেলা। উক্ত মাছের মেলাতে ছোট-বড় সব ধরনের মাছ পাওয়া যাচ্ছে।

আজ শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উপজেলার মহাস্থান বাজারে দুর-দুরান্তের মানুষ আসেন মাছ কিনতে। মেলা উপলেক্ষে এ এলাকার প্রতিটি বাড়িতে বড় বড় মাছ ও নতুন সবজি কিনে স্বজনদের আপ্যায়নের আয়োজন চলছে। জানা যায়, পঞ্জিকা অনুসারে অগ্রহায়ণের প্রথমেই শিবগঞ্জের মহাস্থান বাজারে এ মেলা অনুষ্ঠিত হয়। এদিন নবান্ন উৎসব পালন করা হলেও এ উৎসবকে কেন্দ্র করেই প্রতিবছর এখানে মাছের মেলা বসে।

সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত এ মেলায় এক হাজার মণেরও বেশি মাছ কেনাবেচা হয়েছে। এক কেজি থেকে শুরু করে ২০ কেজি ওজনের বাঘার মাছ, ১৬ কেজি ওজনের ব্ল্যাক কার্প, ১৫ কেজি ওজনের কাতল, রুই, বাগার, সিলভার কার্প সহ হরেক রকমের মাছ বিক্রি হয় এ মেলাতে। তবে গত বছরের তুলনায় এবার মাছের দাম অনেকটায় কম বলে জানিয়েছেন ক্রেতা ও বিক্রেতারা। মেলায় বিশাল আকৃতির রুই-কাতলা ও মাছগুলো ৫০০ থেকে ১ হাজার টাকা কেজিতে বিক্রি হলেও মাঝারি আকারের মাছ ২০০ টাকা থেকে ৪০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। এছাড়া ২৪০ টাকা থেকে ৫০০ টাকা দরে ব্ল্যাক কার্প, ব্রিগেড ও সিলভার কার্প মাছ বেচাকেনা হয়।

মেলায় মাছের পাশাপাশি নতুন শীতকালীন শাক-সবজির পসরাও সাজানো হয়। মেলায় নতুন আলু বিক্রি হয়েছে ২০০থেকে ২২০ টাকা কেজি দরে।

মেলায় আসা মাছ ব্যবসায়ীরা জানান, মেলায় ছোট-বড় মিলে শতাধিক মাছের দোকান বসেছে। প্রত্যেক বিক্রেতা ৫ থেকে ১০ মণ করে মাছ বিক্রি করেছেন। মেলায় মাছ সরবরাহের জন্য সেখানে গতকাল বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) রাত থেকে ২০টি আড়ৎ খোলা হয়। সেসব আড়ৎ থেকে স্থানীয় বিক্রেতারা পাইকারি দরে মাছ কিনে মেলায় খুচরা বিক্রি করেন। মহাস্থান নবান্ন মেলায় বিক্রির জন্য আশপাশের এলাকার পুকুরগুলোতে সৌখিন চাষিরা মাছ মজুদ করে রাখেন। এলাকার কে কত বড় মাছ মেলায় তুলতে পারে যেন তারই প্রতিযোগিতা চলে চাষিদের মধ্যে।

তারা আরও বলেন, এলাকার লোকজনও প্রায় প্রতিযোগিতা করে তুলনামূলক বড় মাছ কিনে বাড়িতে নিয়ে যায়। মূলত সনাতন ধর্মাবলম্বীরা নবান্ন উৎসব করলেও আশপাশের গ্রামের সব সম্প্রদায়ের মানুষই কেনাকাটা করে।

মহাস্থান বাজারের ইজারাদার ইব্রাহিম হোসেন বলেন, মেলাটি আগে ক্ষুদ্র পরিসরে হলেও সম্প্রতি তা ব্যাপকতা লাভ করেছে। শুধু আশপাশেরই নয় পুরো শিবগঞ্জ উপজেলার মানুষ এখানে নবান্নের বাজার করতে আসেন।

শুধু আশে পাশের মানুষ নয়, মাছের মেলার খবর পেয়ে শহর থেকেও অনেকে আসেন মাছ কিনতে। এমনটিই জানিয়েছেন তিনি।

দয়াকরে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরী আরো খবর...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

Developed By VorerSokal.Com
newspapar2580417888