মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ০৯:০৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
দুপচাঁচিয়ায় ভাগ্নিকে ধ র্ষণের অ ভিযোগে খালু গ্রে ফতার উপজেলা নির্বাচন ২০২৪ নোয়াখালী,বেগমগঞ্জ বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ও শহীদ কামারুজ্জামানের সমাধীতে আরসিআরইউ’র শ্রদ্ধা বগুড়ার সেরা ফটোগ্রাফার হিসেবে আইফোন জিতলেন আরিফ শেখ দুপচাঁচিয়ায় জোহাল মাটাইয়ে ক্রিকেট টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন রাজশাহী কলেজ শিক্ষার্থীদের ভাবনায় গৌরবদীপ্ত বিজয় দিবস বর্ণাঢ্য আয়োজনে বগুড়ায় যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত আর্থিক সহায়তা প্রদান করলেন ফাঁপোর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মেহেদী হাসান বগুড়ায় টিএমএসএস মেডিকেল কলেজের ক্যান্সার সেন্টার পরিদর্শন দুপচাঁচিয়ায় বিউটি পার্লারে অভিযান জরিমানা

এ যেন শিল্পীর তুলিতে আঁকা

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৩ নভেম্বর, ২০১৯
  • ৯৮৮ ভিউ টাইম

সবুজ ঘাসের চাদরে ঢেকে আছে সৈকত। মাটির আঁকাবাঁকা ভাঁজে ভাঁজে পানির দোলা। তপ্ত রোদে পর্যটকদের শীতল ছায়া দেয় ম্যানগ্রোভ বনের গাছগাছালি। মাঝেমধ্যে হরিণের উঁকিঝুঁকি, কখনো কখনো ছুটে চলা লাল কাঁকড়া। এ যেন শিল্পীর তুলিতে আঁকা সৈকত। চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের মুরাদপুর ইউনিয়নের গুলিয়াখালী সৈকতে এলে অনায়াসেই বিশ্বাস করতে হবে কথাগুলো।

ফেসবুক ও ইউটিউবের কল্যাণে সৈকতটির কথা এখন অনেকেই জানে। প্রতিদিন অসংখ্য পর্যটক এখন আসছেন এ সৈকতে।

সৈকতটি পাঁচ কিলোমিটারের মধ্যে চন্দ্রনাথ পাহাড় ও মন্দির, বোটানিক্যাল গার্ডেন ও ইকোপার্কস্থ সহস্রধারা ও সুপ্তধারা নামে দুটি ঝরনা। ফলে পর্যটকেরা এখানে পেয়ে যাচ্ছেন পূর্ণ আনন্দের ঠিকানা।

গুলিয়াখালী সৈকতটি দাঁড়িয়ে যায় ২০১৪ সাল থেকে। চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) একদল শিক্ষার্থী সৈকতটিতে ঘুরতে এসে কিছু ভিডিও ও ছবি ফেসবুক, ইউটিউবে নিজেদের প্রোফাইলে আপলোড করেন। এরপর সৈকতটির সৌন্দর্যের কথা ছড়িয়ে পড়ে চারদিকে। বলে রাখা দরকার, পানিতে নামার সময় ঝুঁকি থাকলে এখানে নামতে মানা করে দেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

যদিও সৈকতটি এখনো পর্যটন স্পট হিসেবে সরকারিভাবে স্বীকৃতি লাভ করেনি, কিন্তু সৈকতে মানুষের সমাগমে স্থানীয় ব্যক্তিরা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে লাভবান হচ্ছেন। ফলে পর্যটকদের সুরক্ষা দিতে স্থানীয় ব্যক্তিরা একটি সংগঠন গড়ে তুলেছেন। সৈকতে কোনো পর্যটক অসুবিধায় পড়লে সংগঠনের তত্ত্বাবধায়ককে জানালে তিনি তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেন।

সৈকতটির তত্ত্বাবধায়ক মফিজুর রহমান বলেন, ‘সৈকতটিতে আগে যার যেমন ইচ্ছে গাড়িভাড়া, নৌকাভাড়া দাবি করত। গাড়ি রাখার কোনো জায়গা ছিল না। এখন আমরা ভাড়া নির্ধারণ করে দিয়েছি। ব্যক্তি উদ্যোগে গড়ে উঠেছে পার্কিং এলাকা। পর্যটকদের সুবিধা-অসুবিধা জানালে দ্রুত ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

সীতাকুণ্ড থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শামীম শেখ বলেন, গুলিয়াখালী সৈকতটি নিরাপদ। তবে ট্যুরিস্ট পুলিশ না থাকায় দর্শনার্থীরা যেন সৈকতে রাত পর্যন্ত না থাকেন।

দয়াকরে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরী আরো খবর...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

Developed By VorerSokal.Com
newspapar2580417888