বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১:০৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
দুপচাঁচিয়ায় ভাগ্নিকে ধ র্ষণের অ ভিযোগে খালু গ্রে ফতার উপজেলা নির্বাচন ২০২৪ নোয়াখালী,বেগমগঞ্জ বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ও শহীদ কামারুজ্জামানের সমাধীতে আরসিআরইউ’র শ্রদ্ধা বগুড়ার সেরা ফটোগ্রাফার হিসেবে আইফোন জিতলেন আরিফ শেখ দুপচাঁচিয়ায় জোহাল মাটাইয়ে ক্রিকেট টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন রাজশাহী কলেজ শিক্ষার্থীদের ভাবনায় গৌরবদীপ্ত বিজয় দিবস বর্ণাঢ্য আয়োজনে বগুড়ায় যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত আর্থিক সহায়তা প্রদান করলেন ফাঁপোর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মেহেদী হাসান বগুড়ায় টিএমএসএস মেডিকেল কলেজের ক্যান্সার সেন্টার পরিদর্শন দুপচাঁচিয়ায় বিউটি পার্লারে অভিযান জরিমানা

শিবগঞ্জের-মোকামতলায় কেন্দীয় মন্দিরে সংস্কার কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন

  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর, ২০২০
  • ৩৯৯ ভিউ টাইম

√–সংশ্লিষ্টদের কাছে থেকে সাহায্য সহযোগীতা না পাওয়ায় সংখ্যা লঘু সম্প্রদায় হতাশ!

কনক দেবঃ- বগুড়া শিবগঞ্জের মোকামতলা বন্দরে কেন্দ্রীয় সার্বজনীন মন্দিরে বৃহস্পতিবার সংস্কার কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয়।

জানা যায়ঃ বহু প্রাচীন কালে এ মন্দির স্থাপিত হয়। সেই থেকে যুগ যুগ ধরে মোকামতলা হিন্দু সম্প্রদায়েরা ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান যথাযোগ্য ভাবে পালন করে আসছে।
বন্দরের বর্তমান প্রবীন ব্যক্তিরা শ্রী রামা শংকর প্রসাদ, শ্রী গৌরাঙ্গ কিশোর মুস্তাফি, শ্রী কান্তি দেব,মুক্তিযোদ্ধা শ্রী শিবেন্দু মুস্তাফি সহ প্রমূখদের সাথে কথা বলে জানা গেছে এই মন্দির বহু প্রাচীন মন্দির এর অবকাঠামো কয়েক বছর আগে নষ্ট হয়ে যায়। সেই সাথে আগের চেয়ে মোকামতলায় হিন্দু পরিবারের সংখ্যা অনেক বেড়ে গেছে। আগে ছিল এক-দেড়শ হিন্দু পরিবার। বর্তমানে বন্দরে তিন চারশোর মত পরিবার বসবাস করছে।

মন্দিরের অবকাঠামো নষ্ট হওয়ার পর থেকে কয়েক বছর ধরে হিন্দু সম্প্রদায়েরা তাদের ধর্মীয় অনুষ্ঠানাদি পালন করতে বেশ কষ্ট সাধ্য হয়ে পরে। মন্দির সংস্কার করার জন্য শিবগঞ্জ উপজেলায় সংশ্লিষ্ট দপ্তর, রাজনৈতিক নেতা সহ বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গের কাছে এই বৃহৎ হিন্দু সম্প্রদায়ের একমাত্র কেন্দ্রীয় মন্দির সংস্কার করার জন্য আর্থিক সাহায্য সাহায্য সহযোগিতা বারবার প্রতিশ্রুতি দিলেও আমরা কোন আর্থিক সাহায্য সহযোগিতা পাই নাই।

কোন সাহায্যো সহযোগিতা না পাওয়ায় স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ে মন্দির সংস্কার করার জন্য বর্তমান প্রজন্মরা নিজেদের উদ্যোগে এই সংস্কার কাজ শুরু করে।
এ ব্যাপারে স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের সাথে এই প্রতিবেদক কথা বললে তারা দুঃখের সাথে জানায়। আমাদের বন্দরে সবচাইতে হিন্দু ভোটার বেশি। কথিত আছে মোকামতলা বন্দরের সেন্টারে যে ব্যক্তি নির্বাচিত হয় সেই বিজয়ী হয়। অথচ ভোটের আগে নেতারা দফায় দফায় প্রতিশ্রুতি দিলেও আজ পর্যন্ত কেউ প্রতিশ্রুতি রক্ষা করেনি। তাই অনেক টা খোব দুঃখ হতাশা নিয়ে শেষ পর্যন্ত এই মন্দির সংস্কার কাজ নিজেদের উদ্যোগে শুরু করা হলো।

দয়াকরে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরী আরো খবর...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।

Developed By VorerSokal.Com
newspapar2580417888